ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে সরানোর হুমকি টেইলর সুইফটের


ফ্লয়েড হত্যা

পুলিশের হেফাজতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক ও সাবেক বাস্কেট বল তারকা জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড ঘিরে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে সহিংস বিক্ষোভ  ছড়িয়ে পড়েছে। এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বদলে চলমান বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভের আগুনে ঘি ঢাললেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এক টুইট বার্তায় বিক্ষোভকারীদের ‘লুট শুরু হলে শুট শুরু হবে’ বলে হুঁশিয়ারি দেন।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এমন হুমকি নিয়ে শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। আর ট্রাম্পের এই টুইটের প্রেক্ষিতেই জবাব দিলেন প্রখ্যাত গায়িকা টেইলর সুইফট। পাল্টা হুমকি দিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করার।

তীব্র কটাক্ষ করে সুইফট লেখেন, ‘আপনি প্রেসিডেন্ট হয়েও সাদা চামড়ার আধিপত্যবাদ ও বর্ণবাদে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন। এরপরও কিভাবে আপনি সহিংসতার হুমকি দিতে পারেন। এই আপনার নৈতিক শ্রেষ্ঠত্ব? কীভাবে আপনি গুলি চালানোর নির্দেশ দিতে পারেন! আপনাকে আমরা ভোট দিয়েই ক্ষমতাচ্যুত করব নভেম্বরে।’

অবশ্য ট্রাম্পের ওই বিতর্কিত টুইট সরিয়ে দিয়েছে টুইটার। এর আগে আরেকটি বিতর্কিত টুইট করেন ট্রাম্প। সেখানে তিনি বিক্ষোভকারীদের হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, বিক্ষোভকারীরা হোয়াইট হাউসের সীমানা অতিক্রম করলে তাদের জন্য হিংস্র কুকুর ও ভয়ঙ্কর অস্ত্রশস্ত্র প্রস্তুত ছিল, যা তারা আগে কখনো দেখিনি।

আমেরিকার কৃষ্ণাঙ্গ যুবক ও সাবেক বাস্কেট বল তারকা জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যা ঘিরে সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে পুরো যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে। ‘আমি শ্বাস নিতে পারিছ না’ -এমন শ্লোগানকে ধারণ করে ৩০টি শহরে ছড়িয়ে পড়েছে আন্দোলন। ফ্লয়েডের মৃত্যুতে ফুঁসে ওঠা বিক্ষোভকারীরা শুক্রবারের পর শনিবারও রাস্তায় নেমে এসে বিক্ষোভ দেখায়।

এরই মধ্যে অভিযুক্ত ওই চার পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে এবং জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যার জন্য মূল অভিযুক্ত ডেরেক শভিনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবার তাকে আদালতে হাজির করা হবে। ৪৬ বছর বয়স্ক জর্জ ফ্লয়েডকে ২৫ মে সন্ধ্যায় প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

সূত্র- হিন্দুস্তান টাইমস।

Share Button